টিপস

ইন্ডিয়া থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

ইন্ডিয়া থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম। সম্মানিত সুধী, আপনি যদি ভারত থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে চান তাহলে আআমাদের এই পোস্টের মাধ্যমে পরিপূর্ণ ধারনা লাভ করতে পারবেন। কারন আমাদের এই পোস্টের মাধ্যমে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করবো যে কিভাবে সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদভাবে টাকা পাঠাতে পারবেন।

বর্তমানে অনেকেই আছেন যারা ইন্ডিয়া থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন কিন্তু বিভিন্ন জটিলতায় আটকে আছেন। এছাড়া প্রতারণার ফাদে পা না দিয়ে কিভাবে নিজের কষ্টার্জিত টাকা দেশে পাঠাবেন সেই চিন্তা করছেন। তাই এসব সমস্যার সহজ সমাধান আশা করি এখানে পেয়া যাবেন।

অনলাইনে টাকা পাঠানোর নিয়ম

অনলাইনে টাকা পাঠানো বলতে মূলত বোঝায় আপনার টাকা হোক সেটি কার্ডে বা ব্যাংক হিসেবে, সেটি কোন ভার্চুয়্যাল মাধ্যম ব্যাবহার করে অন্য কারো কাছে পাঠানো। এক্ষেত্রে বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে অনলাইনে টাকা পাঠানোর জন্য। তবে সব দেশেই আবার এইসব মাধ্যম এভেইলেভল না। তাই একমাত্র সরকার অনুমোদিত মাধ্যেমেই কেবল আপনি টাকা লেনদেন করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনি যদি ভারতীয় রুপি বাংলাদেশে প্রেরণ করতে চান তাহলে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন ব্যাবহার করতে পারেন।

ভারত থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায়

ভারত থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায়। আপনি যদি ভারত বা বিশ্বের অন্য যেকোন দেশ থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে চান তাহলে অতি দ্রুত এবং কার্যকারী মাধ্যম হচ্ছে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন । অন্যান্য আরো কিছু উপায় থাকলেও বর্তমানে বহুল জনপ্রিয় এবং বিশ্বস্ত মাধ্যম হচ্ছে এই Western Union, কারন এতে করে আপনি অতি অল্প সময়ের মধ্য কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই নিজের আপন কাউকে টাকা পাঠাতে পারেন।

আপনি চাইলে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এর মাধ্যমে দুইভাবে টাকা পাঠাতে পারবেন। যেমনঃ

১. ক্যাশ টু ক্যাশ
২. অনলাইনের মাধ্যমে এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে।

এই দুইভাবেই আপনি ভারত থেকে বা পৃথিবীর অন্যান্য যে সব দেশে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন রয়েছে সেখান থেকে সহজেই টাকা পাঠাতে পারবেন। তবে লক্ষ রাখতে হবে যে অবশ্যই সেই দেশের সরকারের অনুমোদন থাকতে হবে।

Western Union এ কিভাবে টাকা পাঠানো যায়

ইতিমধ্যই আমরা আলোচনা করেছি যে আপনি Western Union ব্যাবহার করে দুইভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। এবার আমরা এই দুই পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

Western Union এর মাধ্যমে ক্যাশ টু ক্যাশ পাঠানোঃ

আপনি যদি সরাসরি টাকা পাঠাতে চান তাহলে আপনাকে যে কাজগুলো করতে হবে সেগুলি হলোঃ

  • নিকটস্থ কোন Western Union এর শাখায় যেতে হবে।
  • সেখানে গিয়ে আপনার নিজের তথ্য এবং যিনি টাকাটি রিসিভ করবে তার তথ্য দিয়ে একটি ফরম পূরণ করতে হবে।
  • যাদের ভিসা জটিলতা থাকে তাদের জন্য সুখবর হলো এখানে কোন ভিসা দেখানোর প্রয়োজন পড়ে না। পাসপোর্ট দেখালেই চলবে।
  • এরপর টাকাটি তারা রিসিভ করবে এবং ১০ ডিজিটের একটি পাসকোড দিবে।
  • এবার যিনি রিসিভ করবেন তাকে নিজের আইডি বা নিজের পরিচয় প্রমাণ করবে এমন তথ্য সম্বলিত ডকুমেন্ট নিয়ে নিকটস্থ Western Union এর শাখায় যেতে হবে যেই শাখায় টাকাটি পাঠানো হয়েছে।
  • এবার মোবাইল নাম্বার সহ যাবতীয় সব তথ্য তারা চেক করবেন এবং দশ ডিজিটের সেই পাসকোড জানতে চাইবেন।
  • সব তথ্য ঠিকমতো দিতে পারলে টাকাটি পেয়ে যাবেন।
  • এছাড়া যদি অনাকাঙ্খিতভাবে যদি টাকাটি না উঠাতে পারেন বা অন্য কোন জটিলতা দেখা দেয় তাহলে যিনি টাকা পাঠিয়েছেন তিনি চাইলে পুনরায় টাকাটি সহজেই ফেরত নিতে পারেন।
  • বলা বাহুল্য যে এই মাধ্যমে আপনার কিছু চার্জ প্রযোজ্য হবে।

Western Union ব্যাবহার করে অনলাইনে টাকা পাঠানোঃ

যেহেতু করোনা পরিস্থিতির মধ্য অনেকেই বাহিরে যেতে পারছেন না বা নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। তাদেরকে বলবো যে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এর মাধ্যমে আপনি ঘরে বসেই ভারতীয় রুপি বাংলাদেশে পাঠাতে পারবেন। অনলাইনের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে হলে আপনাকে নিম্নলিখিত ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবেঃ

  • আপনি চাইলে Western Union অ্যাপ অথবা ওয়েভ ভার্সন যে কোন একটি ব্যাবহার করতে পারেন।
  • এরপর আপনাকে প্রথমেই সাইন আপ করতে হবে।
  • নিজের যাবতীয় তথ্য দিয়ে সাইন আপ করুন।
  • টাকা পাঠাতে সেন্ড মানি অপশন সিলেক্ট করুন।
  • এরপর রিসিভার দেশ সিলেক্ট করুন এবং ইস্টিমেটেট এমাউন্ট বা আপনি কত রুপি পাঠাবেন সেটি পূরণ করুন। এর পর আপনা আপনিই দেখতে পারবেন যে বাংলাদেশি টাকায় কত টাকা হবে।
  • এরপর যিনি রিসিভ করবেন তিনি সরাসরি ক্যাশ পিকাপ করবেন নাকি যে-কোন ব্যাংক থেকে পিকাপ করবেন সেটি সিলেক্ট করুন।
  • আপনি চাইলে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড অথবা ব্যাংক একাউন্ট যে কোন জায়গা থেকে টাকা পাঠাতে পারেন।
  • এরপর পরবর্তি ধাপে গিয়ে নতুন রিসিভার এড করুন। যিনি টাকাটি রিসিভ করবেন তার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে ফরম পূরণ করুন।
  • বাংলাদেশে যতগুলো ব্যাংক রয়েছে আপনি সেখান থেকে ইচ্ছামত যেকোন ব্যাংক এ পাঠাতে পারেন।
  • এরপর আপনি যদি কার্ড দিয়ে টাকা পাঠাতে চান তাহলে আপনার কার্ড এর নাম্বার সহ বিস্তারিত তথ্য সেখানে সেট করে কন্টিনিউ করুন।
  • এরপরের ধাপে আপনার কার্ড যে নাম্বারের আওতায় রয়েছে সেই নাম্বারে একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড আসবে সেটি পূরন করুন এবং সব তথ্য ঠিক থাকলে সেন্ড করুন।
  • সবশেষ ধাপে আপনার ওয়ার্ক পারমিট এর দুই সাইটের ছবি চাইবে, সেই ছবি আপ্লোড দিন এবং সেন্ড করুন।
  • বাস এভাবেই আপনার টাকাটি বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিতে পারেন।

সুপ্রিয় পাঠক , আশা করি আপনার কষ্টার্জিত টাকাটি নিরাপদে প্রেরণ করুন। প্রতারণার ফাদে পা না দিয়ে চোখ কান খোলা রাখুন এবং সামনে এগিয়ে চলুন। টাকা লেনদেনের ক্ষেত্রে সবসময় বিশ্বস্ত পন্থা অবলম্বন করুন।

Show More
Back to top button